চাকুরী বাজার

মোবাইল ব্যাংকিং রকেট –ডাচ-বাংলা এর সকল তথ্য

মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট-একটি সেবা দান প্রতিষ্ঠান  হিসেবে বাংলাদেশে সাফল্য অর্জন করেছে। এই মোবাইল ব্যাংকিং রকেট ডাচ বাংলা ব্যাংকিং হিসেবে দারুন সুপরিচিতি লাভ করেছে। একজন গ্রাহক সহজেই যেকোনো ধরনের পেমেন্ট বিল অনলাইনে সেবা ক্যাশ আউটসহ, এটিএম কার্ড ক্যাশ আউট ও ক্যাশ ইন সম্পর্কে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের যাবতীয় সেবা খুব সহজ এবং দ্রুতগতিতে গ্রাহকরা পেয়ে থাকে। 

রকেট মোবাইল ব্যাংকিং কাকে বলে ?

ডাচ বাংলা ব্যাংক এর একটি নিজস্ব ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান হিসাবে রকেট এর সেবা অন্যতম। রকেট নামকরনের পিছনে কারণ হচ্ছে আমরা সাধারণত যারা বিমান দেখে থাকি, এবং বিমানে করে বিভিন্ন দেশ ভ্রমন করে করি।

 রকেট নামে dutch bangla banking এর নামকরণ করা হয়েছে। সহজেই একজন গ্রাহক হাতের মুঠোয় রকেট মোবাইল ব্যাংকিং পরিচালনা করে থাকেন। https://daliatista.com

মোবাইল ব্যাংকিং রকেট সেবা চালু হয় কখন ?

মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট-সর্বপ্রথম রকেট মোবাইল ব্যাংকিং ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং সেবার নামে চালিত হয়। ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংক চালু হয় ২০১১ সালে। যা মোবাইল ভিত্তিক এই সেবাটি সর্বপ্রথম ডাচ বাংলা ব্যাংক চালু করে।  অতঃপর 2016 সালে ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং নাম পরিবর্তন করে রকেটের নামকরণ করে এ পর্যন্ত সেবা প্রদান করে আসছে।

বর্তমানে রকেট মোবাইল ব্যাংকিং এর সুবিধা ও সেবা সমূহ

মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট-বাংলাদেশে রকেট মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে দেশের যেকোন প্রান্তরে এমনকি বিদেশ পর্যন্ত মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে লেনদেন করা সম্ভব। যা এটি মোবাইল ফোনের সহজ  ক্রাইটেরিয়া পূরণ সাপেক্ষে মোবাইল ব্যাংকিং রকেট সেবা কে আরো অধিকতর জনপ্রিয় করে তুলছে।

  • ক্যাশ ইন করা 
  • ক্যাশ আউট করা 
  • মার্চেন্ট প্রেমেন্ট 
  • রেমিটেন্স ট্রান্সফার 
  • বেতন প্রদান 
  • ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট 
  • মোবাইলে ব্যালেন্স রিচার্জ 
  • টাকা ট্রান্সফার 
  • বিভিন্ন ভাতা প্রদান 
  • ছাত্র ছাত্রীদের উপবৃত্তি প্রদান 
  • এটিএম কার্ড হতে টাকা উত্তোলন সহ আরো অনেক সুবিধা সম্বলিত সেবা।
  • বাংলাদেশের যে কোন প্রান্ত হতে যে কোনো সময়ে মোবাইল ব্যাংকিং এর সেবা নিশ্চিত করে থাকে
  •  একজন সেবা গৃহিতা সঞ্চয় এর জন্য  মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় বৃদ্ধিতে ব্যাপক অবদান রেখে চলছে।
  • মোবাইল ব্যাংকিং রকেট ব্যবস্থার মাধ্যমে অতি দ্রুত এবং আধুনিক মানের ব্যাংকিং সেবায় নিয়োজিত রেখেছে।

মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট-

কিভাবে রকেট একাউন্ট খুলবেন ?

ডাচ বাংলা রকেট মোবাইল ব্যাংকিং মূলত দুই ভাবে খোলা যায় ।

১। একটি হচ্ছে রকেট মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্টের কাছ থেকে রকেট একাউন্ট খোলা যায়

২। আপনি ইচ্ছা করলেই রকেট মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে নিমিষে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।

কিভাবে এজেন্টের কাছ থেকে রকেট একাউন্ট খুলবেন ?

মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট-বাংলাদেশে যে সমস্ত রকেট অনুমোদিত এজেন্ট রয়েছে তাদের কাছ থেকে ডাচ বাংলা ব্যাংকের যেকোনো ব্রাঞ্চ  ও রকেট মোবাইল ব্যাংকিং অফিস কিংবা রকেট কাস্টমার কেয়ার হচ্ছে রকেট এজেন্ট। 

আপনি যখন রকেট এখন খুলতে যাবেন যে সমস্ত এজেন্ট ধারি আছে তারা আপনাকে একটা KYC ফর্ম দিবে  এই KYC ফর্মটি পূরণ করে সাথে আপনার এক কপি ছবি এবং জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি জমা দিতে হবে।

অতঃপর ফরমটি পূরণ করা সাপেক্ষে আমরা সহজেই রকেট মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট খুলতে সক্ষম হব।

তারপর রকেট মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্ট  আপনার তথ্যগুলো যাচাই-বাছাই সাপেক্ষে রকেট একাউন্ট থেকে আপনার যে মোবাইল নাম্বারটি আছে সেটা রকেট একাউন্ট নামে চালু করার আবেদন করবে।

আপনার আবেদনটি হয়ে গেলে একটি ৪ সংখ্যার পিন সেটাপ করতে বলবে যা আপনার  রকেট মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট চালু হয়ে যাবে।

আপনার এই  ৪ সংখ্যার পিন মূলত আপনার যাবতীয় লেনদেন করার জন্য এই ৪ সংখ্যার পিনটি প্রযোজ্য হবে।

অত্যন্ত সতর্কতার সহিত আপনার এই ৪ সংখ্যার গোপন পিনটি কারো কাছে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকবেন। না হলে আপনি অনেক বিপদের সম্মুখীন হতে পারেন।

 রকেট অ্যাপস এর মাধ্যমে একাউন্ট খুলতে পারেন ?

মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট-আপনি ঘরে বসে যে কোন সময় যে কোন মুহূর্তে মোবাইল ব্যাংকিং রকেট এপস এর মাধ্যমে এই অ্যাকাউন্টটি খুলতে পারবেন। যা অত্যন্ত সহজ এবং আধুনিক মোবাইল ব্যাংকিং রকের একাউন্ট খোলা যায়। https://www.google.com

ধাপ -১

এক্ষেত্রে প্রথমে আপনাকে আপনার মোবাইলে প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ বাটনে রকেট অ্যাপস লিখে সার্চ দিলেই রকেট অ্যাপস টি আপনার সামনে ভেসে উঠবে।

ধাপ -২

এরপর আপনি উপরের ধাপটি অনুসরণ করার পর আপনি যে নাম্বার দিয়ে রকেট এখন খুলতে চান সে নাম্বারটি ইনপুট দিতে হবে।

ধাপ – ৩

 উপরের দুটি ধাপ অনুসরণ করার পর আপনার মোবাইল নাম্বারটি অপারেটরের কাছে সিলেট করে দিতে হবে।

ধাপ -৪

আপনার প্রধান কৃত মোবাইল নাম্বারটিতে  একটি কল আসবে  সেই কলও আপনাকে আপনার পিন নাম্বারটি বলতে হবে।

ধাপ – ৫

কল শেষ হওয়ার পর আপনার মোবাইল নাম্বারে একটি এসএমএস আসবে সেই এসএমএ সে ৪ সংখ্যার একটি ওটিপি সংখ্যা  সাবমিট করতে বলবে তারপর আপনাকে সেই সমস্ত ক্রাইটেরিয়া পূরণ করে সাবমিট করতে হবে।

ধাপ -৬ 

এরপর আপনাকে হোম পেজে নিয়ে যাবে সেখানে কেওয়াইসি ফরম পূরণ সাপেক্ষে সকল ট্রামস এন্ড কন্ডিশন  এগ্রি করে দিতে হবে। 

ধাপ-৭

অতঃপর উপরের সকল ক্রাইটেরিয়া পূরণ করা হলে আপনার রকেট একাউন্ট খুলে যাবে।

আপনি কিভাবে রকেট একাউন্টটি চেক করবেন ?

১।  ম্যানুয়ালি  ভাবে চেক করবেন *322# ডায়াল করে জানতে পারবেন।

২। রকেট অ্যাপস এর মাধ্যমে।

  • প্রথমে আপনাকে *322# ডায়াল করতে হবে।  
  • এরপর আপনাকে Balance  অপশন এ গিয়ে 5  সিলেক্ট করতে হবে।
  •  তারপরে রিপ্লাই করতে হবে। 

অথবা  আপনি চাইলে 16216  এই নাম্বারে একটি খালি মেসেজ পাঠালে আপনাকে এসএমএসের মাধ্যমেও আপনার রকেট একাউন্টের ব্যালেন্স জানিয়ে দিবে।

রকেট একাউন্টের পিন যেভাবে পরিবর্তন করবেন ?

আপনি চাইলে বা আপনার সন্দেহ থাকলে যেকোনো সময় আপনার রকেট একাউন্টের পিন পরিবর্তন করতে পারবেন এক্ষেত্রে আপনাকে যেসব ধাপ অতিক্রম করতে হবে। 

1. প্রথমে আপনাকে *322#  ডায়াল করে রকেট মেনুতে প্রবেশ করতে হবে

 2.সেখান থেকে 7 অপশনে Change Pin যেতে হবে 

 3.প্রথমে আপনাকে বর্তমান যে আপনার  পিন নাম্বারটি আছে সে পিনটি দিতে  Reply করতে হবে। 

4.এখন  আপনার পছন্দমত চায়ের সংখ্যার নতুন পিনটি লিখে Reply দিলে আপনার পিনটি পরিবর্তন হয়ে যাবে।

শেষকথাঃ উপরিক্ত মোবাইল-ব্যাংকিং-রকেট- লেনদেন সম্পর্কে আপনাদের মাঝে উপস্থাপন করা হলো যা আপনারা সহজেই বুঝতে সক্ষম হয়েছেন। আপনি যদি সঠিকভাবে এই সমস্ত ক্রাইটেরিয়া বুঝে যেকোনো ধরনের মোবাইল ব্যাংকিং রকেটের যাবতীয়  কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে পারবেন। আশা করি আপনাদের উপকারে আসবে, আরো নিত্য নতুন তথ্য-উপাত্ত বিভিন্ন বিষয়ের উপর পেতে চাইলে আমার ফেসবুক পেজে ফলো দিয়ে পাশে থাকবেন। আজকের মত এখানেই শেষ করছি সবাই নিরাপদে সতর্কতার সহিত লেনদেন করবেন আল্লাহ হাফেজ।

 

admin

মোঃ শফিকুল ইসলাম লেবু (Lecturer) ডালিয়া, ডিমলা, নীলফামারী। আমি বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে কন্টেইন ও ব্লগিং পোষ্ট করে থাকি, এ ব্যাপারে পাঠকগন মতামত দিলে - যথাসম্ভব উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করব ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *